চুনারুঘাটে জমির ধান খাওয়াকে কেন্দ্র করে মা ছেলেকে পিটিয়ে দাঁত ভেঙ্গে দিয়েছে প্রতিপক্ষের লোকজন-
চুনারুঘাট প্রতিনিধি ॥ চুনারুঘাট উপজেলার মিরাশী ইউনিয়নের আব্দুল্লাহপুর গ্রামের মৃত আঃ মতলিবের স্ত্রী ফাতেমা খাতুন (৪০) ও তার পুত্র কালিকাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র নুর আলম (১৪) কে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে হাত ও দাঁত ভেঙ্গে দিয়েছে প্রতিপক্ষের লোকজন। জানা যায়, সোমবার বিকাল ৩টার দিকে উপজেলার আব্দুল্লাহপুর  গ্রামে ফাতেমা খাতুনের বাড়ির সামনের রাস্তায় এ ঘটনাটি ঘটে। আহতদের আত্মচিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আাসলে মা-ছেলেকে আশংকাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে চুনারুঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। আহত বিধবা ফাতেমা খাতুন জানান, আব্দুল্লাহপুর  গ্রামের আঃ রউফের পুত্র কাজল মিয়া (২৫) ও তার পিতা আব্দুর রউফসহ একদল দূর্বৃত্ত নুর আলমকে বাড়ির পাশে রাস্তায় একা পেয়ে পূর্ব বিরোধের জের ধরে গরুর ধান খাওয়াকে কেন্দ্র করে মা-ছেলেকে বেধড়ক পিটিয়ে মা ফাতেমা খাতুনের ডান হাত ও ছেলে নুর আলমের মুখের দাঁত ভেঙ্গে দেয়। খবর পেয়ে চুনারুঘাট থানার এস.আই মোঃ মোস্তফা কামালসহ একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। ফাতেমা খাতুন বাদী হয়ে চুনারুঘাট থানায় আব্দুর রউফ ও তার পুত্র কাজল মিয়াকে আসামী করে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন এ ব্যাপারে অভিযান অব্যাহত আছে বলে জানায় পুলিশ।
-