নির্বাচিত হলে হবিগঞ্জ শহরকে জলাবদ্ধতামুক্ত করার ঘোষণা মেয়র প্রার্থী মিজানের-

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আওয়ামী লীগ প্রার্থী মিজানুর রহমান মিজান বলেছেন মেয়র নির্বাচিত হলে দেড় বছরের মধ্যে প্রয়োজনে রাষ্ট্রীয় শক্তি প্রয়োগ করে পৌরসভাকে জলাবদ্ধতা থেকে মুক্ত করবো। বর্তমানে হবিগঞ্জ পৌরসভার প্রধান সমস্যা হচ্ছে জলাবদ্ধতা। আমি যখন বিভিন্ন এলাকা ঘুরে বেড়াচ্ছি তখন হবিগঞ্জে পানি নিষ্কাশনের এ করুন অবস্থা দেখে আমি বিচলিত হয়ে পড়ি। সবেমাত্র জৈষ্ঠ্য মাস শুরু। এখনও আষাঢ় বা শ্রাবণ আসেনি। এই জৈষ্ঠ মাসেই যদি হবিগঞ্জ পৌরবাসীকে পানিবন্দি হয়ে বসবাস করতে হয় তাহলে ২/৩ মাস পর কী অবস্থা হবে তা সহজেই অনুমেয়। আমি দুঃখ ভারাক্রান্ত হই যখন ১ম শ্রেনীর একটি পৌরসভার এই করুন হাল দেখি। গত কয়েকদিন হবিগঞ্জ পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় ঈদ পরবর্তী শুভেচ্ছা বিনিময়কালে জলাবদ্ধাতার শিকার জনগনের সাথে মতবিনিময়কালে আসন্ন হবিগঞ্জ পৌরসভার উপনির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী মিজানুর রহমান মিজান উপরের কথাগুলো বলেন।
হবিগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজান বলেন, জনগণ আমাকে মেয়র পদে নির্বাচিত করলে আমার প্রথম দায়িত্ব হবে জনগণকে অচিরেই জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি দেয়া। তিনি আরো বলেন, ইতোমধ্যে আমি হবিগঞ্জ পৌরসভার জলাবদ্ধতার কারণগুলো চিহ্নিত করেছি। শহরের ড্রেনগুলো পরিস্কার করতে পৌর কর্তৃপক্ষের উদাসীনতা ও ব্যর্থতা ছাড়াও প্রভাবশালী মহল ও হীনমন্য ব্যক্তিদের পুরাতন খোয়াই নদী দখল, খাল দখল ও ভরাট, পুরাতন রেললাইনের দু‘পাশের খাল দখল করে ভবন নির্মাণ, ইমারত আইন ভঙ্গ করে জলাশয় ভরাট করে স্থাপনা নির্মাণ হচ্ছে সাম্প্রতিক জলাবদ্ধতার মূল কারণ। আমি নির্বাচিত হলে- জলাবদ্ধতার কারণগুলো চিহ্নিত করে তা সমাধানের মাধ্যমে হবিগঞ্জ পৌরসভাকে একটি বসবাসযোগ্য শহর হিসেবে প্রতিষ্ঠা করব।
হবিগঞ্জ পৌরসভার সাবেক সফল কাউন্সিলর মিজানুর রহমান মিজান পৌরবাসীকে আসন্ন উপনির্বাচনে স্বাধীনতা এবং উন্নয়নের প্রতীক নৌকায় ভোট দেয়ার আহবান জানিয়ে বলেন, আমি জনরায়ে নির্বাচিত হলে পৌরসভার রাজনৈতিক, সামাজিক, ক্রীড়া, সাংস্কৃতিক সংগঠক ও কর্মী তথা সুশীল সমাজের সহযোগিতা ও পরামর্শ গ্রহন করে পৌরসভাকে জনমূখী প্রতিষ্ঠানে পরিণত করব।
-
প্রথম পাতা