কালেঙ্গা বন রক্ষায় সরকার মেগা প্রজেক্ট হাতে নিয়েছে ॥ প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী-
স্টাফ রিপোর্টার ॥ বেসামরিক বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট মাহবুব আলী এমপি বলেছেন, বর্তমান সরকার দেশের উন্নয়নের জন্য কাজ করছে। কেউ অনিয়ম দুর্নীতি করলে জিরো ট্রলারেন্স নীতিতে ব্যবস্থা নেয়া হবে। সরকার গরীব দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফুটানোর জন্যে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি বলেন, বিমান বন্দরে এখন আর যাত্রীদের হয়রানি করা হয় না। ঘন্টার পর ঘন্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হয় না ১৫ মিনিটের মাধ্যমেই চেকআপ করা হয়। সন্দেহভাজন ছাড়া কোন যাত্রীকে চেকআপ করা হয় না। আগামীতে সিলেটে বিশেষ পর্যটন কেন্দ্র স্থাপনের পরিকল্পনা রয়েছে।
গতকাল রবিবার দুপুরে নবীগঞ্জ উপজেলার বাউসা ইউনিয়নের বদরদি দাইমুদ্দিন এতিমখানা ও হাফিজিয়া মাদ্রাসায় ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত সুধি সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথাগুলো বলেন।
পরে মন্ত্রী সাংবাদিকদের সাথে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে প্রশ্ন উত্তরপর্বে বলেন, বিমানের পাইলট ফজল মাহমুদের অনিচ্ছাকৃত ভুলের জন্য পাসপোর্ট ফেলে যায় আইডি কার্ড ব্যবহার করে সিকিউরিটি পাস নেয়। প্রত্যেক পাইলটেই তাদের আইডি কার্ড ব্যবহার করে সিকিউরিটি পাস নেয়। তাদের পাসপোর্ট দেখানোর প্রয়োজন হয় না। তাই পাইলটের এই ভুল হয়েছে। তবে এ ব্যাপারে তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। তাদের প্রতিবেদন মোতাবেক ব্যবস্থা নেয়া হবে।
তিনি আরেক প্রশ্নের জবাবে বলেন, বাংলাদেশের ২য় বৃহত্তর বন হবিগঞ্জের কালেঙ্গা বনকে রক্ষায় সরকার মেগা প্রজেক্ট হাতে নেয়া হয়েছে। স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের উন্নয়ন বরাদ্দের অনিয়ম নিয়ে ক্ষোভের বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে, তিনি বলেন, স্থানীয় নেতাকর্মীদের মাধ্যমেই বিভিন্ন প্রজেক্ট কমিটি করা হয়। যদি উন্নয়নে কোন ধরনের অনিয়ম দুর্নীতি হয় সেখানে জিরো ট্রলারেন্স নীতিতে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
হবিগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ডাঃ মুশফিক হুসেন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, হবিগঞ্জ-২ আসনের এমপি ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ খান, হবিগঞ্জ-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও জাতীয় পার্টির কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এমএ মুনিম চৌধুরী বাবু, হবিগঞ্জ-সিলেট সংরক্ষিত আসনের সাবেক সংসদ সদস্য আমাতুল কিবরিয়া চৌধুরী কেয়া, হবিগঞ্জের স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক নুরুল ইসলাম, নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুল হক চৌধুরী সেলিম, নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইমদাদুর রহমান মুকুল, সাধারণ সম্পাদক সাইফুল জাহান চৌধুরী, যুক্তরাজ্য লেবার পার্টির নেতা বদরদি দাইমুদ্দিন এতিমখানা ও হাফিজিয়া মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতাসহ-সভাপতি ফয়ছল হোসেন চৌধুরী এমবিই, হবিগঞ্জ-বাহুবল সার্কেলের সিনিয়র পুলিশ সুপার পারভেজ আলম চৌধুরী, নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ বিন-হাসান। অনুষ্টানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, বদরদি দাইমুদ্দিন এতিমখানা ও হাফিজিয়া মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক জুনেদ হোসেন চৌধুরী। এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ইউপি চেয়ারম্যান সত্যজিৎ দাশ প্রমুখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন, উপজেলা ছাত্রসমাজের সভাপতি চৌধুরী এমএম স্বপন।
-
প্রথম পাতা