বানিয়াচঙ্গের টুপিয়াজুরী গ্রামে এক ব্যক্তিকে মারপিট করে ধান লুটে নেয়ার অভিযোগ ॥ আদালতে মামলা-
স্টাফ রিপোর্টার ॥ বানিয়াচঙ্গের টুপিয়াজুড়ী গ্রামে পূর্ব বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের লোকজন এক ব্যক্তির ধান লুটে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল বুধবার ধানের মালিক আয়াত আলী ৫ জনকে আসামী করে হবিগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট  আদালতে একটি মামলা দায়ের করেছেন। এতে আসামী করা হয় টুপিয়াজুড়ী গ্রামের ছহিবুল্লা মিয়া, তার ছেলে জজ মিয়া, দিলু মিয়া, মানিক মিয়া ও শহিদ মিয়াকে। মামলায় অভিযোগ করা হয়- আসামীদের সাথে দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল বাদী আয়াত আলী। এর জের ধরে অভিযুক্তরা তার ক্ষতি সাধন করার চেষ্টা চালিয়ে আসছিল। এরই ধারাবাহিকতায় ১১ মে ভোরে বাদীর খলা বস্তাভর্তি ২০/২৫ মন ধান চুরি করে নিয়ে যায় আসামীরা। এ সময় বাদীর বোন জামাতা জালাল মিয়া দেখে শোর চিৎকার করে বাধা দিলে তার উপর হামলা চালায় আসামীরা। এ সময় জালাল মিয়ার স্ত্রী স্বামীকে বাচাঁনোর জন্য এগিয়ে আসলে আসামীরা তার উপর হামলা চালায় এবং তাকে শ্লীলতাহানী করে। আসামীদের হামলায় জালাল মিয়া ও তার স্ত্রী আহত হন। এক পর্যায়ে জালাল মিয়াকে জোরপূর্বক তাদের বাড়িতে নিয়ে আটকে রাখে অভিযুক্তরা। ধান ছাড়াও বিভিন্ন কৃষি যন্ত্রপাতি লুটপাট এবং ভাংচুর হয়েছে বলেও মামলায় উল্লেখ করা হয়। খবর পেয়ে বানিয়াচং থানা পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ এবং জালাল মিয়াকে উদ্ধার করে। মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবি অ্যাডভোকেট ফয়জুল বসীর চৌধুরী সুজন জানান, মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার জন্য বানিয়াচঙ্গ অফিসার ইনচার্জকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। আমরা আশা করছি, খবু শ্রীঘই মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করবে পুলিশ।
-