সাংবাদিকরা সহযোগিতা করলে হবিগঞ্জকে আরো অনেক এগিয়ে নিতে সক্ষম হবো ॥ জেলা প্রশাসক-
স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসক মাহমুদুল কবীর মুরাদ বলেছেন, গণমাধ্যম যে কোনও ব্যক্তি এবং স্থানকে মর্যাদার স্থানে নিয়ে যেতে পারে। হবিগঞ্জের সাংবাদিকরা সবসময় দায়িত্ব নিয়েই কাজ করে আসছেন। তবে ঘটনার বিবরণের পাশাপাশি হবিগঞ্জের ইতিবাচক বিষয় তুলে ধরতে হবে। সাংবাদিকরা যদি তাদের মেধা দিয়ে সহযোগিতা করেন তাহলে হবিগঞ্জকে আরো এগিয়ে নিতে সক্ষম হবো।
দেশের শীর্ষস্থানীয় সংবাদপত্র দৈনিক কালেরকণ্ঠ’র দশম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল সকালে হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।
জেলা প্রশাসক আরো বলেন, কালের কণ্ঠ শুরু থেকেই ভালো অবস্থান করে নিতে সক্ষম হয়েছে। সংবাদ পরিবেশনের ক্ষেত্রে এখানে আধুনিকতা রয়েছে। পত্রিকাটি হাতে পেলে আরামদায়ক অনুভূতি তৈরী হয়। এই পত্রিকার সংবাদের গ্রহণযোগ্যতা থাকায় তারা স্বল্প সময়ে জনপ্রিয় অবস্থায় যেতে সক্ষম হয়েছে।
বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা বলেন, দেশ এবং বিশ্ব সম্পর্কে আমরা জানতে পারি সংবাদপত্রের মাধ্যমে। কালের কণ্ঠ আমাদের অনেক তথ্য দিয়ে সমৃদ্ধ করে থাকে। বিশেষ করে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে মিডিয়া।
কালের কণ্ঠের পাঠক ফোরাম শুভ সংঘ হবিগঞ্জ শাখার উদ্যোগে অনুষ্ঠানমালায় ছিল কেক কাটা, র‌্যালি, আলোচনা সভা এবং গুণী শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবক সংবর্ধনা। সকাল ১১টায় হবিগঞ্জ প্রেসক্লাব মিলনায়তনে কেক কেটে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করা হয়। এরপর আলোচনা সভা ও সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়। বর্ণাঢ্য র‌্যালি শহর প্রদক্ষিণের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।
কালের কণ্ঠের জেলা প্রতিনিধি ও হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শাহ ফখরুজ্জামানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা, হবিগঞ্জ সরকারী মহিলা কলেজের উপাধ্যক্ষ অধ্যাপক নজমুল হক, হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি হারুনুর রশিদ চৌধুরী, সাবেক সভাপতি ফজলুর রহমান, বৃন্দাবন সরকারি কলেজের উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. সুভাষ চন্দ্র দেব, হবিগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুধাংশু কর্মকার, শুভ সংঘ হবিগঞ্জের সভাপতি কবি ও নাট্যকার রুমা মোদক, বিশিষ্ট শিশু সংগঠক রোটারিয়ান বাদল কুমার রায়, হবিগঞ্জ বাস মালিক সমিতির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস আহমেদ, হবিগঞ্জ সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি শাকিল চৌধুরী, অ্যাডভোকেট মোঃ আবু জাহির উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক লায়ন মোঃ আসাদুজ্জামান, হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মহিবুর রহমান মাহি, নিউজ টোয়েন্টিফোর এর জেলা প্রতিনিধি শ্রীকান্ত গোপ, দৈনিক খোয়াই’র বার্তা সম্পাদক মঈন উদ্দিন আহমেদ, বাংলানিউজের হবিগঞ্জ প্রতিনিধি বদরুল আলম, কালেরকণ্ঠের নবীগঞ্জ প্রতিনিধি আলমগীর মিয়া, মাধবপুর উপজেলা প্রতিনিধি আবুল হাসান ফায়েজ, অ্যাডভোকেট সামছুল হক, অ্যাডভোকেট ইসরাইল মিয়া, অ্যাডভোকেট মিজানুর রহমান  প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে দেশের শ্রেষ্ঠ কলেজ শিক্ষক নির্বাচিত হওয়ায় সরকারি বৃন্দাবন কলেজের উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. সুভাষ চন্দ্র দেব, খাদ্য বিভাগের অফিস সহায়ক (৪র্থ শ্রেণীর কর্মচারী) আ. রহমান বাবুল নিজের ৩ মেয়েকে মেডিকেলে অধ্যায়ন করানোর স্বীকৃতি স্বরূপ এবং ব্যাপক প্রতিকূলতা পেরিয়ে দরিদ্র পিতা ক্যান্সার আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করার পরও বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার কৃতিত্ব দেখানো হতদরিদ্র পরিবারের সন্তান সুবিনয় দেবনাথ এবং ৪১ বছর যাবৎ শিক্ষকতা পেশায় থেকে নিজের এলাকা এবং সন্তানদেরকে আলোকিত করায় স্কুল শিক্ষক জাকির হোসেনের হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

-