হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে মাদ্রাসা ছাত্র ওয়াদুদ ॥ বিত্তবানদের সাহায্য কামনা-
পাঁচ হাজার টাকা সাহায্য দিলেন ইউএনও জসীম উদ্দিন
বাহুবল প্রতিনিধি ॥ বাহুবলে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত মাদ্রাসা ছাত্র আব্দুল ওয়াদুদ (১০) এর চিকিৎসার জন্য আর্থিক অনুদান দিয়েছেন বাহুবল উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোঃ জসীম উদ্দিন। শনিবার বেলা ১১ টায় ৫ হাজার টাকার অনুদানের চেক আহত ছাত্রের পিতার হাতে তুলে দেন তিনি।
আহত ওয়াদুদ মিরপুর জামেয়া হোসাইনিয়া মাদ্রাসার তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র। সে মিরপুর ইউনিয়নের কামারগাঁও গ্রামের দিনমজুর মানিক মিয়ার ছেলে। বর্তমানে সে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।
প্রসঙ্গত, গত ৩১ অক্টোবর সকালে মাদ্রাসা থেকে বাড়ি যাওয়ার পথে চেরাগ আলী ফিলিং স্টেশনের কাছে পৌছলে অজ্ঞাত একটি এ্যাম্বুল্যান্স তাকে ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যায়। তাৎক্ষনিক স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। পরে তার অবস্থার অবনতি ঘটলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তির পরামর্শ দেন। দিনমজুর পিতার পক্ষে সিলেট হাসপাতালে যাওয়ার ভাড়া না থাকায় তাৎক্ষনিক উপস্থিত গণমাধ্যম কর্মীরা টাকা সংগ্রহ করে একটি এ্যাম্বুলেন্স দিয়ে আহত ছাত্রকে সিলেট প্রেরণ করেন।
এদিকে এ্যাম্বুলেন্সের ধাক্কায় তার পা ভেঙ্গে গুড়ো হয়ে যায়, মাথায় ও চোঁখে প্রচন্ড আঘাত লাগে। চিকিৎসা আর টাকার অভাবে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে শিশুটি। ৩ নভেম্বর পর্যন্ত তার জ্ঞান পুরোপুরি ফিরেনি বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। তিনি বলেন সে এখনও শংকামুক্ত নয়, জরুরী ভিত্তিতে তার পা ও চোঁখে অস্ত্রোপাচার করতে হবে। এ অবস্থায় দিনমজুর পিতা চিকিৎসা খরচ চালাতে পারছে না। ছেলেকে বাঁচাতে সমাজের বিত্তবানদের কাছে সাহায্য চেয়েছেন তিনি।

-