ছিনতাইকারীর কবলে পড়ে দুই এম্বুলেন্স চালক হাসপাতালে ॥ মারা গেছেন এক মহিলা-
জুয়েল চৌধুরী ॥ হবিগঞ্জ ও বানিয়াচঙ্গে দুই এম্বুলেন্স ছিনতাইকারীর কবলে পড়ে এক মহিলা মারা গেছেন। ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাকাতে দুই এম্বুলেন্স চালক আহত হয়েছে। আহতরা হলো হবিগঞ্জ শহরতলীর জালালাবাদ গ্রামের এম্বুলেন্স চালক সমরাজ মিয়া (২৮) ও পাইকপাড়া গ্রামের সুমন দেব (৩০)। এ ঘটনায় এম্বুলেন্স ও মাইক্রোবাস চালকদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।
আহতরা জানান, গত শুক্রবার সুমন ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে রোগী দেখে হবিগঞ্জে আসার পথে রাত ১টায় ধুলিয়াখাল বাইপাস সড়কে পৌঁছলে একদল ছিনতাইকারী গাড়িটি আটক করে ভাংচুর করে। এক পর্যায়ে সুমনকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে নগদ টাকা ও মোবাইল ফোন নিয়ে যায়। খবর পেয়ে সদর থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে তাকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। পুলিশ পৌঁছার আগেই ছিনতাইকারীরা পলিয়ে যায়।
অন্যদিকে, গত বৃহস্পতিবার হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে চুনারুঘাট উপজেলার পাকুড়িয়া গ্রামে আলেয়া বেগম (৫৫) নামে এক মহিলা হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে আসেন। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় ওইদিন রাত ১২টায় সদর হাসপাতাল থেকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তাকে রেফার করা হয়। এম্বুলেন্স চালক সমরাজ মিয়া মুমূর্ষ অবস্থায় আলেয়াকে সিলেট নেয়ার পথে নবীগঞ্জ-হবিগঞ্জ সড়কের বানিয়াচং উপজেলার চাদকপুর এলাকায় এম্বুলেন্সটি একই পরিস্থিতির শিকার হয়। ছিনতাইকারীরা ঘন্টাখানেক আটকে রেখে গাড়িটি ভাংচুর চালায়। ছিনতাইকারীদের আতঙ্কে ও সময়মতো সিলেট যেতে না পারায় আলেয়া মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। সুমন এবং সমরাজ সদর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।
এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ থানার ওসি মোঃ সহিদুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, খবর পাওয়ার সাথে সাথে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। কিন্তু কাউকে পায়নি। এরপরও ছিনতাইকারীদের ধরতে অভিযান অব্যাহত আছে।

-
প্রথম পাতা