পূর্ব বিরোধের জেরে মাকে মারপিট ও আড়াই মাসের শিশুকে আছাড় দিয়ে ফেলে দিয়েছে প্রতিপক্ষ-
স্টাফ রিপোর্টার ॥ বানিয়াচঙ্গ উপজেলার কাটখাল গ্রামে পূর্ব বিরোধের জের ধরে বাড়িতে হামলা চালিয়ে মাকে মারপিট ও আড়াই মাসের শিশুকে আছড়ে ফেলে দিয়ে আহত করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। গুরুতর আহত অবস্থায় সীমা আক্তার (২১) ও শিশু লিজা আক্তারকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্মরত ডাক্তার আশংকাজনক অবস্থায় তাদের সিলেট এমএজি ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন।
সূত্র জানায়, কাটখাল গ্রামের খায়রুল ইসলামের সাথে দীর্ঘদিন ধরে একই গ্রামের তাজ উদ্দিনের এলাকার আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এ বিরোধের জের ধরে মঙ্গলবার দুপুরে খায়রুল ইসলামের বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে তাজ উদ্দিন ও তার স্ত্রী তফুরা খাতুনসহ তাদের সহযোগীরা তার বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় খায়রুল ইসলামের স্ত্রী সীমা আক্তারকে মারপিট করে। এক পর্যায়ে তাজ উদ্দিন উত্তেজিত হয়ে খায়রুল ইসলামের আড়াই মাসের শিশুকে খাট থেকে তুলে আছাড় দিয়ে ফেলে দেয়। খায়রুল ইসলামের স্ত্রী চিৎকার করলে এলাকার লোকজন এগিয়ে এসে তাজ উদ্দিন ও তার স্ত্রী তফুরা খাতুন সহযোগীদের নিয়ে পালিয়ে যায়। খায়রুলের স্ত্রী সীমা আক্তার ও শিশু কন্যা লিজা আক্তারকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্মরত চিকিৎসক তাদেরকে সিলেট এমএজি ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন। এ খবর পেয়ে খাগাউড়া পুলিশ ফাঁড়ির একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ ব্যাপারে খাগাউড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ জুলহাস জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গেলে খায়রুল ও তার স্বজনরা জানান, সীমা আক্তার ও শিশুকে প্রতিপক্ষের লোকজন মারধোর করেছে। খায়রুল ইসলাম জানান, তার বাড়িতে কেউ না থাকায় তাজ উদ্দিন তার স্ত্রী তফুরা খাতুন তাদের লোকজন নিয়ে বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় তারা তার স্ত্রীকে মারধোর করে এবং আড়াই মাসের শিশুকে আছড়ে ফেলে দেয়। এতে তার স্ত্রী ও শিশুকন্যা গুরুতর আহত হয়।

-