হবিগঞ্জ শহরের যত্রতত্র গড়ে উঠেছে অবৈধ টমটমের গ্যারেজ ॥ ৩ মালিককে জরিমানা-
জুয়েল চৌধুরী ॥ হবিগঞ্জ শহরের বিভিন্ন এলাকায় ব্যাঙের ছাতার মত গড়ে উঠেছে অবৈধ টমটমের গ্যারেজ। এসব গ্যারেজে টমটমের ব্যাটারি চার্জের জন্য নামমাত্র মিটার ব্যবহার করে অবৈধ সংযোগ দিয়ে গ্যারেজ ব্যবসা পরিচালনা করে যাচ্ছে কতিপয় গ্যারেজ মালিক। আর এ কারণে হবিগঞ্জ শহরে বিদ্যুত বিভ্রাট হচ্ছে। গত ১২ নভেম্বর হবিগঞ্জ শহর ও শহরতলীর তিন অবৈধ টমটম গ্যারেজ মালিকের বিরুদ্ধে মামলা ও জরিমানা করেছে বিদ্যুত বিভাগ। ওইদিন আলমবাজারের তাজ উদ্দিনের গ্যারেজ, উমেদনগর বানিয়াচং সড়কের আব্দুল খালেক কাজলের গ্যারেজ ও একই এলাকার লস্কর মিয়ার গ্যারেজকে বিভিন্ন অংকে জরিমানা করা হয়। হবিগঞ্জ বিদ্যুত উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী শামস-ই আরেফীন জানান, অবৈধভাবে বিদ্যুত সংযোগের কারণে আব্দুল খালেক কাজল ও লস্কর মিয়ার বিরুদ্ধে বিদ্যুত আইনে মামলা চলমান আছে এবং তাজ উদ্দিনের বিরুদ্ধে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুসারে মামলা করা হবে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে- হবিগঞ্জ শহরে ৫ হাজারের বেশী ব্যাটারী চালিত টমটম চলাচল করে থাকে। এসব টমটমের ব্যাটারি চার্জ দেয়ার জন্য ছোট বড় মিলিয়ে শতাধিক গ্যারেজ স্থাপন করা হয়েছে। এসব গ্যারেজে টমটম চার্জ দেয়ার ফলে অতিরিক্ত চাপ সামলাতে না পেরে বিদ্যুতের লোডশেডিং হয়। প্রায় সময়ই দেখা যায় অতিরিক্ত লোডের কারণে মেইন লাইনের তার ছিড়ে যায়। এতে করে প্রতিদিনই ১ থেকে ২ ঘন্টা বিদ্যুতবিহীন অবস্থায় থাকতে হয় শহরবাসীকে। হবিগঞ্জ শহরে বিদ্যুতের কোন ঘাটতি নেই। সাম্প্রতিককালে ১-২ ঘন্টা করে বিভ্রাট ঘটছে। আর এর জন্য টমটমের ব্যাটারী চার্জকেই দায়ী করছেন শহরবাসী।
এ ব্যাপারে বিদ্যুত উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী শামস-ই আরেফীন জানান, হবিগঞ্জ শহরে কোন বৈধ টমটম গ্যারেজ নেই। বাণিজ্যিকভাবে লাইন নিয়ে অনেকে ব্যবসা পরিচালনা করছেন।

-