পল্লী বিদ্যুত সমিতির পরিচালকের ঘুষ দাবির অভিযোগে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ-
গত ১২ সেপ্টেম্বর হবিগঞ্জ থেকে প্রকাশিত “দৈনিক হবিগঞ্জ সমাচার” ও ১৩ সেপ্টেম্বর “দৈনিক খোয়াই” পত্রিকায় “হবিগঞ্জ পল্লীবিদ্যুত সমিতির পরিচালকের বিরুদ্ধে ঘুষ দাবির অভিযোগে মামলা” শীর্ষক সংবাদটি আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। প্রকাশিত সংবাদের ঘটনাটি সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও উদ্দেশ্যপ্রনোদিত। আমি প্রতিবাদকারী হবিগঞ্জ পল্লীবিদ্যুৎ অঞ্চল-০৬ এ বিগত নির্বাচনে গ্রাহকদের বিপুল ভোটে নির্বাচিত হই। গ্রাহকদের হয়রানি লাঘবের জন্য অফিসটিকে দালালমুক্ত করার পদক্ষেপ নেই। দীর্ঘদিনের দালাল প্রতারকের মত জঞ্জাল নির্মূল করার পদক্ষেপ নেওয়া দালালচক্র ও নির্বাচনে পরাজিত শক্তি আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা ষড়যন্ত্র শুরু করে। মিথ্যা মামলা ও সংবাদ প্রকাশ কুচক্রি মহলের ষড়যন্ত্রেরই বহিঃপ্রকাশ। পরাজিত শক্তিদের লালিত দালাল নির্মূল কাজে বাধা প্রদান করার লক্ষ্যে এবং আমার ব্যক্তিগত ও সামাজিকভাবে মানমর্যাদা ক্ষুন্ন করার জন্য এই মিথ্যা ঘটনা সাজিয়েছে। উল্লেখ্য যে, গত ১১ সেপ্টেম্বর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অত্রাফিসে দালাল নির্মূলের জন্য অভিযান পরিচালনা করেছিলেন। আমার বিরুদ্ধে অভিযোগকারী শাহপুর গ্রামের সবুর হোসেনের পুত্র হাফিজ উল্লাহ এলাকাবাসির কাছে একজন মামলাবাজ হিসেবে পরিচিত। আপন ভাইসহ প্রতিবেশি এবং আত্মীয় স্বজনের বিরুদ্ধে সে বাদি হয়ে একাধিক মামলা দায়ের করে হয়রানি করে আসছে। সেই মিথ্যাবাদীর মামলাবাজের মিথ্যা তথ্য দিয়ে মামলা দায়ের এবং প্রকাশিত সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।
প্রতিবাদকারী
মোঃ মিজানুর রহমান চকদার
পরিচালক
হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি
অঞ্চল-০৬
-